শিরোনামঃ
লাল-সবুজ পতাকা হাতে ৪১ হাজার ফুট উঁচু থেকে লাফ দিয়ে রেকর্ড গড়ার প্রস্তুতি আশিক চৌধুরীর" হোটেল রিগাল প্যালেসে চলছে ধামাকা অফার বসুন্ধরা সিমেন্টের বার্ষিক বিক্রয় সম্মেলন-২০২৪ অনুষ্ঠিত ইউ, এস, জি, বি, সি, প্লাটিনাম সনদ অর্জন করলো এম,টি সোয়েটার্স "স্বাস্থ্যকর খাবার নিশ্চিত করতে নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগ" কুবারনেটিজ কমিউনিটি ডে (কেসিডি)-2024 প্রথমবারের মত বাংলাদেশে উদযাপিত হল  ১৫তম মেডিটেক্স বাংলাদেশ ২০২৪-এ অংশ নিচ্ছে সাইনেস্ট শেয়ারট্রিপের মেগা ক্যাম্পেইন, শেয়ারট্রিপ পে’র এর মাধ্যমে জিতুন আকর্ষণীয় সব পুরস্কার" বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করছে ওয়ানপ্লাস কারাগারেও মাদকের আখড়া

"শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশের প্রথম সিজনে অংশগ্রহণের আবেদনের শেষ তারিখ ৩০শে জানুয়ারী

#
news image

সম্প্রতি উদ্যোক্তাদের উদ্ভাবনী ব্যবসাকে তুলে ধরার জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ, আনুষ্ঠানিকভাবে তার প্রথম সিজনের আবেদন গ্রহণের চূড়ান্ত সময়সীমা ঘোষণা করেছে। উদ্যোক্তারা আগামী ৩০শে জানুয়ারী, ২০২৪ পর্যন্ত শার্ক ট্যাংক-এ আবেদন করতে পারবেন। ইতোমধ্যেই জমা পড়া আবেদনগুলো নিয়ে পর্যালোচনার কাজ শুরু হয়েছে। বেশ কয়েকটি দলে তাদের বাছাই করে চলছে গ্রুমিং প্রক্রিয়া।

এই শো-তে যেকোনো বৈধ ব্যবসার মালিক, প্রতিষ্ঠান কিংবা শুধুমাত্র একটি ব্যবসার আইডিয়া নিয়েও আবেদন করা যাবে। শো-টিতে উদ্যোক্তারা তাদের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন ইউনিক বিজনেস আইডিয়া বিনিয়োগকারী বা শার্কদের সামনে উপস্থাপন করার সুযোগ পাবে। শার্কদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে তারা প্রতিযোগীদের ব্যবসায় বিনিয়োগ করতে চান কিনা। এর মাধ্যমে প্রতিযোগীরা শার্কদের কাছ থেকে বিভিন্ন মেয়াদে বিনিয়োগ গ্রহণ করে তাদের ব্যবসায়িক ধারণা কিংবা প্রতিষ্ঠানকে বিস্তৃত করার মাধ্যমে তাদের স্বপ্নকে পূরণ করার সুযোগ পাবে। প্রবাসী বাংলাদেশী প্রতিযোগী, যাদের ব্যবসায়িক ধারণা কিংবা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের বাজার ঘিরে, তারাও ঢাকায় এসে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এটি উদ্যোক্তাদের জন্যে একটি বিশেষ সুযোগ যেখানে শুধুমাত্র মূলধন বাড়াতেই নয় বরং সকলের সামনে নিজের প্রতিষ্ঠানকে তুলে ধরতেও সাহায্য করবে। ব্যবসায়িক ধারণার আদলে বানানো এই রিয়েলিটি শো-টি বাংলাদেশী উদ্যোক্তাদের জীবন পরিবর্তন করতে উদ্বুদ্ধ করবে।

বিশ্বনন্দিত এই শার্ক ট্যাংক শো পৃথিবীর ৪০টিরও বেশি দেশের দর্শকদের বিমোহিত করেছে। এখানে উদ্যোক্তারা ‘শার্ক’দের কাছ থেকে এখন পর্যন্ত ৬০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি বিনিয়োগ পেয়েছে, যা তাদের কোম্পানিকে অভূতপূর্ব বৃদ্ধির দিকে চালিত করেছে। তাছাড়া শুধুমাত্র বিনিয়োগই নয় বরং তারা শো-তে উপস্থিত হওয়ার পর বিলিয়ন বিলিয়ন বিক্রি করে ব্যবসায়িক সম্প্রসারণও দেখেছে। 

২০০১ সালে, জাপানে নিপ্পন টিভি দ্বারা নির্মিত টাইগারস অফ মানি নামে এই শো চালু হয়। পরবর্তীতে ২০০৫ সালে যুক্তরাজ্যে ড্রাগনস ডেন নামে এটি রূপান্তরিত হয় এবং ২০০৯ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শার্ক ট্যাংক হিসাবে শো-টির প্রিমিয়ার শুরু করে। এই শো-এর ফরম্যাটটি আন্তর্জাতিকভাবে বিতরণ করছে সনি পিকচার্স টেলিভিশন।

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ এই শো-এর জন্য দেশিয় বিনিয়োগকারীদের একটি পাওয়ার হাউস প্যানেল একত্রিত করার চেষ্টা করছেন যারা বিভিন্ন শিল্প এবং বৃহৎ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিত্ব করে। এই শার্ক তথা বিনিয়োগকারীদের পরিচয় যথাসময়ে প্রকাশ করা হবে। শো-টি দীপ্ত টিভিতে এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ-তে দেখা যাবে। 

অংশগ্রহণকারীরা মাই রবি অ্যাপ অথবা বঙ্গ ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে শোটির জন্য আবেদন করতে পারবে। শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ-এর রেজিস্ট্রেশন লিঙ্ক: https://sharktank.bongobd.com

আবুল বরাকাত:

২৯-১-২০২৪ বিকাল ৫:২৪

news image

সম্প্রতি উদ্যোক্তাদের উদ্ভাবনী ব্যবসাকে তুলে ধরার জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ, আনুষ্ঠানিকভাবে তার প্রথম সিজনের আবেদন গ্রহণের চূড়ান্ত সময়সীমা ঘোষণা করেছে। উদ্যোক্তারা আগামী ৩০শে জানুয়ারী, ২০২৪ পর্যন্ত শার্ক ট্যাংক-এ আবেদন করতে পারবেন। ইতোমধ্যেই জমা পড়া আবেদনগুলো নিয়ে পর্যালোচনার কাজ শুরু হয়েছে। বেশ কয়েকটি দলে তাদের বাছাই করে চলছে গ্রুমিং প্রক্রিয়া।

এই শো-তে যেকোনো বৈধ ব্যবসার মালিক, প্রতিষ্ঠান কিংবা শুধুমাত্র একটি ব্যবসার আইডিয়া নিয়েও আবেদন করা যাবে। শো-টিতে উদ্যোক্তারা তাদের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন ইউনিক বিজনেস আইডিয়া বিনিয়োগকারী বা শার্কদের সামনে উপস্থাপন করার সুযোগ পাবে। শার্কদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে তারা প্রতিযোগীদের ব্যবসায় বিনিয়োগ করতে চান কিনা। এর মাধ্যমে প্রতিযোগীরা শার্কদের কাছ থেকে বিভিন্ন মেয়াদে বিনিয়োগ গ্রহণ করে তাদের ব্যবসায়িক ধারণা কিংবা প্রতিষ্ঠানকে বিস্তৃত করার মাধ্যমে তাদের স্বপ্নকে পূরণ করার সুযোগ পাবে। প্রবাসী বাংলাদেশী প্রতিযোগী, যাদের ব্যবসায়িক ধারণা কিংবা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের বাজার ঘিরে, তারাও ঢাকায় এসে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এটি উদ্যোক্তাদের জন্যে একটি বিশেষ সুযোগ যেখানে শুধুমাত্র মূলধন বাড়াতেই নয় বরং সকলের সামনে নিজের প্রতিষ্ঠানকে তুলে ধরতেও সাহায্য করবে। ব্যবসায়িক ধারণার আদলে বানানো এই রিয়েলিটি শো-টি বাংলাদেশী উদ্যোক্তাদের জীবন পরিবর্তন করতে উদ্বুদ্ধ করবে।

বিশ্বনন্দিত এই শার্ক ট্যাংক শো পৃথিবীর ৪০টিরও বেশি দেশের দর্শকদের বিমোহিত করেছে। এখানে উদ্যোক্তারা ‘শার্ক’দের কাছ থেকে এখন পর্যন্ত ৬০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি বিনিয়োগ পেয়েছে, যা তাদের কোম্পানিকে অভূতপূর্ব বৃদ্ধির দিকে চালিত করেছে। তাছাড়া শুধুমাত্র বিনিয়োগই নয় বরং তারা শো-তে উপস্থিত হওয়ার পর বিলিয়ন বিলিয়ন বিক্রি করে ব্যবসায়িক সম্প্রসারণও দেখেছে। 

২০০১ সালে, জাপানে নিপ্পন টিভি দ্বারা নির্মিত টাইগারস অফ মানি নামে এই শো চালু হয়। পরবর্তীতে ২০০৫ সালে যুক্তরাজ্যে ড্রাগনস ডেন নামে এটি রূপান্তরিত হয় এবং ২০০৯ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শার্ক ট্যাংক হিসাবে শো-টির প্রিমিয়ার শুরু করে। এই শো-এর ফরম্যাটটি আন্তর্জাতিকভাবে বিতরণ করছে সনি পিকচার্স টেলিভিশন।

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ এই শো-এর জন্য দেশিয় বিনিয়োগকারীদের একটি পাওয়ার হাউস প্যানেল একত্রিত করার চেষ্টা করছেন যারা বিভিন্ন শিল্প এবং বৃহৎ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিত্ব করে। এই শার্ক তথা বিনিয়োগকারীদের পরিচয় যথাসময়ে প্রকাশ করা হবে। শো-টি দীপ্ত টিভিতে এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ-তে দেখা যাবে। 

অংশগ্রহণকারীরা মাই রবি অ্যাপ অথবা বঙ্গ ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে শোটির জন্য আবেদন করতে পারবে। শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ-এর রেজিস্ট্রেশন লিঙ্ক: https://sharktank.bongobd.com